পালস অক্সিমিটার


1)হৃৎস্পন্দন ও শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা মাপার যন্ত্র
2)সহজে বহনযোগ্য ছোট যন্ত্রটি আঙুলের মাথায় লাগিয়ে জানা যায় রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ।
Oximeter কেনো প্রয়োজন:
COVID-19 এ আক্রান্ত বা রয়েছে এমন মানুষদের জন্য পালস অক্সিমিটার হতে পারে সাহায্যকারী একটি যন্ত্র। এতে কার হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে, কখন ভর্তি হতে হবে, কার অক্সিজেন থেরাপির দরকার এবং কাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র বা আইসিইউতে নিতে হবে কিংবা ভেন্টিলেশনে রাখতে হবে, তা সহজেই জানা যায় পরীক্ষার মাধ্যমে।
শরীরে অক্সিজেনের স্বাভাবিক মাত্রার পরিমান :
1)oximeter এ ৯৫ থেকে ১০০ শতাংশ অক্সিজেন মাত্রাকে স্বাভাবিক হিসেবে ধরা হয়।
২)যদি O2 level ৯৫ শতাংশের কম হলে শরীরে তখন অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দেয়। চিকিৎসার ভাষায় হাইপোক্সিয়া বলা হয়।
তখন শ্বাস নিতে প্রচণ্ড কষ্ট হয় সঙ্গে মাথাব্যথা, বুকব্যথা, হৃৎস্পন্দন বেড়ে যেতে পারে।
কিভাবে oximeter ব্যবহার করবো :
1) অক্সিজেনের মাত্রা অক্সিমিটার ভেদে বা ভিন্ন ভিন্ন সময়ভেদে একই অক্সিমিটারে ফল ২ শতাংশ কম বা বেশি দেখাতে পারে, যা স্বাভাবিক হিসেবে ধরা হয়।
2)দুই হাতের সব আঙুলের মাধ্যমেই মাপা যায়। কিন্তু পরামর্শেরা বলেন ডান হাতে কাজ করতে অভ্যস্ত মানুষ ডান মধ্যমা ও বুড়ো আঙুল।
অথবা যদি বাঁ হাতে বেশি কাজ করতে অভ্যস্ত মানুষের ক্ষেত্রে বাঁ হাতের মধ্যমা ও বুড়ো আঙুল ভালো ফল দেয়।
সর্তকতা :
যদি শরীরের তাপমাত্রার চেয়ে হাত বেশি ঠান্ডা থাকে, তাহলে অক্সিমিটার সঠিকভাবে কাজ করে না।
সে ক্ষেত্রে পালস অক্সিমিটার ভুল ফল দিতে পারে। তাই ব্যবহারের আগে অবশ্যই এই ব্যাপারে বিশেষ নজর দিতে হবে।