ঘুমের ঔষধ সেবনে সতর্কতা

ঘুমের ঔষধ সেবনে সতর্কতা


ঘুমের ঔষধ:

বলতে গেলে এটি একটি জাতীয় ঔষধ কারণ প্যারাসিটামল এর মত আমরা ঘুমের ওষুধও যখন তখন প্রেসক্রিপশন ছাড়াই সেবন করি।আমাদের দেশে প্রেসক্রিপশন ছাড়াই অবাধে বিক্রি হচ্ছে এসব ঘুমের ওষুধ।

 অথচ বিশেষজ্ঞের মতে ঘুমের ঔষধ কখনোই একটানা 28 দিনের বেশি খাওয়া উচিত নয় এতে করে এটি নেশায় পরিণত হয়।


দীর্ঘদিন ঘুমের ওষুধ খাওয়ার ফলে হঠাৎ করে এটা ছাড়তে চাইলে অনেক জটিলতা সৃষ্টি হয় যেটাকে বলা হয় উইথ ড্র সিনড্রোম যেমন:অস্থিরতা সৃষ্টি হতে পারে, ঘুম একদমই চলে যায়, এমনকি অনেকের খিঁচুনি পর্যন্ত হতে পারে যা একটি মারাত্মক দিক।

যারা ইনসম্নিয়া বা মানসিক অস্থিরতায় ভুগছেন তারা অবশ্যই একজন সাইকেট্রিকস এর পরামর্শ অনুযায়ী ঘুমের ওষুধ সেবন করবেন।

কারণ একজন ডক্টর যখন রোগীকে ঘুমের ওষুধ দিয়ে থাকেন তখন একটা নির্দিষ্ট সময় পর তা বন্ধ করার পরামর্শও দিয়ে থাকেন।


তাই ইচ্ছে মত ঘুমের ঔষধ না খেয়ে ডক্টরের পরামর্শ নিয়ে প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ঘুমের ওষুধ সেবন করুন।

Share in Social Media